Adolescent Kallyani editedকিশোরী কল্যাণী মূলত তার আশেপাশের কিশোরীদের জীবনমানোন্নয়নের জন্য কাজ করে থাকেন। একজন কিশোরী কল্যাণী তার ইউনিয়নের কিশোরীদের মধ্যে স্বাস্থ্য ও জীবনযাত্রার মানুোন্নয়নমূল সেবা, তথ্য ও পরামর্শ প্রদান করেন।

 

কিশোরী কল্যাণী হতে যেসব যোগ্যতা প্রয়োজন:

১. স্বাস্থ্য সেবা দেওয়ার পূর্বাভিজ্ঞতা

২. প্যারামেডিক সার্টিফিকেট/ স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক প্রশিক্ষণ

৩. তথ্য-প্রযুক্তিগত জ্ঞান

সেবার পরিধি
  • কিশোরীদের স্বাস্থ্য সেবা প্রদান (রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা, ওজন অনুসারে উচ্চতা মাপা, রক্তচাপ পরীক্ষা, অ্যালবুমিন পরীক্ষা ইত্যাদি)
  • রক্তস্বল্পতা পরীক্ষা ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান
  • বিষেশজ্ঞ ডাক্তারের সাথে কথাপোকথনের সাহায্যে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান
  • কিশোরীদের জন্য পুষ্টি পরামর্শ প্রদান
  • কিশোরীদের প্রজনন স্বাস্থ্য সেবা প্রদান
  • মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ ও সচেতনতা তৈরি এবং বিশেষজ্ঞ পরামর্শ প্রদান
  • ইন্টারনেটের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন ও ভোটার আইডির জন্য আবেদন করা
  • চাকরির আবেদন করতে সাহায্য করা
  • সোশ্যাল মিডিয়াভিত্তিক আউট সোসিং
  • বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও শিক্ষা বৃত্তির জন্য আবেদন করতে সাহায্য করা
  • শিক্ষার্থীদের বিষয়ভিত্তিক বিভিন্ন ভিডিও প্রদর্শন
  • শিক্ষার্থীদের জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় আবেদন করতে সাহায্য করা
  • আইনগত অধিকার বিষয়ক সচেনতামূলক উঠান বৈঠক
  • বিশেষজ্ঞ সাথে কথাপোকথনের মাধ্যমে আইনগত পরামর্শ প্রদানের ব্যবস্থা
সাধারণ সেবা:
  • বীমা সেবায় নিবন্ধন
  • মোবাইল নেটওয়ার্কভিত্তিক সেবা- সীম বিক্রয়, মোবাইল রিচার্জ, মানি অর্ডার (বাংলালিংক), ইন্টারনেট প্যাকেজ বিক্রয়
  • ই-কমার্স
  • মোবাইল ব্যাংকিং- বিকাশ, ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং (রকেট) এ অ্যাকাউন্ট খোলা ও লেনদেন করা
পণ্য বিক্রয়:
স্যানিটারী ন্যাপকিন, স্যালাইন, সাবান, হ্যান্ডওয়াশ, আন্ডার গার্মেন্টস, এসো কম্পিউটার শিখি (বই), মোবাইল ফোন, সোলার লাইট, পরিবেশ বান্ধব চুলা (মুসপানা চুলা) এবং অন্যান্য শিক্ষা সহায়ক পণ্য (কলম, রঙ পেন্সিল, খাতা) ইত্যাদি।
Facebook
Twitter
YOUTUBE
LINKEDIN